জাফরানি মিষ্টি দই

জাফরানি মিষ্টি দই

জাফরানি মিষ্টি দই

রেসিপি ও ছবিঃ হেলেনা পারভিন রুমা

উপকরণঃ তরল ফরল ক্রিম গরুর দুধ ২ লিটার
গুঁড়া দুধ ১/২ কাপ
কনডেন্সড মিল্ক ২ কাপ কাপ (চাইলে চিনিও ব্যবহার করতে পারেন অথবা চিনি ও কনডেন্সড মিল্ক এক সাথে ব্যবহার করতে পারেন। মিষ্টির পরিমাণ অবশ্যই আপনার স্বাদ অনুযায়ী দিন)
জাফরান একটু কুসুম গরম দুধে ভিজানো ১/২ চা চামচ (কালারের জন্য ও আপনি চাইলে চিনি দিয়ে ক্যারামেল তৈরি করে দিয়ে কালার করতে পারেন)টক দই ১ কাপ (পানি ঝরানো ও অবশ্যই নরমাল তাপমাত্রার হতে হবে)

আরও লাগবেঃ দই বসানোর পাত্র (কাচেঁর বাটি, মাটির বাটি বা সিরামিকের বাটি অথবা হটপট নিতে পারেন)

তৈরি করার নিয়মঃ প্রথমে পাত্রে দুধ নিয়ে চুলায় জ্বাল দিয়ে কয়েকবার বলক তুলে নিন। এবার কাপে কিছু গরম দুধ নিয়ে তাতে গুঁড়া দুধ দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে পাত্রের দুধের সাথে মিশিয়ে নিন। এবার কনডেন্সড মিল্ক ও দুধে মেশানো জাফরান সব এক সাথে মিশিয়ে ভালোভাবে নাড়ুন। এরপর কয়েকবার বলক তুলে দুধ একটু ঘন হয়ে আসলে নামিয়ে ফেলুন। এবার হালকা কুসুম গরম হয়ে আসার জন্য অপেক্ষা করুণ। দুধ হালকা কুসুম তাপমাত্রায় হয়ে আসলে অর্থাৎ আঙুল দিয়ে চেক করে দেখতে হবে সহ্য করার মত গরম কিনা, তখন পানি ঝরানো টক দই হুইক্স দিয়ে ভাল করে ফেটে নিয়ে দুধে নেড়ে মিশিয়ে

জাফরানি মিষ্টি দই

নিন অথবা হেন্ড বিটার দিয়ে মিশিয়ে নিলে বেশী ফেটতে হবে না। যে পাত্রে দই বসাবেন তাতে অল্প দই নিয়ে তলায় লাগিয়ে দই মিশানো দুধ ঢেলে দিতে হবে। একটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে অথবা ফয়েল পেপার দিয়ে ঢেকে গরম কোন জায়গায় রেখে দিন। আমি ওভেন ১০০°তে ১০মিনিট গরম করে ওভেন বন্ধ করে ওভেনের ভিতর পাত্রটি একটি ছোট কম্বল দিয়ে ঢেকে রেখে দিয়ে ছিলাম ১০-১২ ঘন্টা। দই জমে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে পারফেক্ট দই জমতে মিনিমাম ৮-১০ ঘন্টা সময় লেগে যায়। একদম নড়াচড়া করা যাবে না দই জমে না যাওয়া পর্যন্ত। রাতে বসালে, সকালে ১০ দশটায় চেক করে দেখুন। জমে গেলে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।

টিপসঃ
* দই জমে না যাওয়া পর্যন্ত নড়াচড়া করা যাবে না। না হয় দই জমবে না।
* দুধ জ্বাল দিয়ে একটু ঘন করতে হবে।
* দই ওভেন ছাড়া ও গরম জায়গায় ভারি কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখলে ৮-১০ ঘন্টায় জমে যাবে বা গরম চুলার পাশে ঢেকে রেখে দিতে হবে জমে যাওয়া পর্যন্ত।
* দই অবশ্যই পানি ঝরানো এবং রুম টেমপারেচারে হতে হবে।

রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা একটি ওয়েব ম্যাগাজিন। রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা, ঘুড়ি এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। “রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা“ হচ্ছে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় গল্প ও কবিতার ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমাদের ওয়েবসাইটটি দেশের গন্ডি পেরিয়ে ভারত, নেপাল, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডাসহ বিভিন্ন দেশের মানুষের কাছে যেতে সক্ষম হয়েছে।