রাজ ভাপা

রাজ ভাপা

রাজ ভাপা

রেসিপি ও ছবিঃ হেলেনা পারভিন রুমা

উপকরণ: আতপ চালের গুঁড়া ২কাপ
লবণ (সামান্য পরিমাণ মতো)
কুসুম গরম পানি (পরিমাণ মতো)
নারকেল কোরানো (পরিমাণ মতো)
খেজুরের গুঁড় গুঁড়া করা (পরিমাণ মতো)

আরো লাগবে, পিঠা বানানোর জন্য রাইছ কুকার বা স্টীমারের ছিদ্র ওয়ালা পাত্র
এক টুকরা বড় সুতির কাপড়
গারনিশ এর জন্য নিয়েছি কিছু চেরী কুচি (না দিলেও চলবে)

তৈরি করার নিয়মঃ প্রথমে চালের গুঁড়াতে লবণ দিয়ে মিশিয়ে নিন। তারপর এতে অল্প অল্প করে কুসুম গরম পানি গুঁড়াতে হাত দিয়ে মিশিয়ে নিন। এমন আন্দাজে পানি মিশান যেন গুঁড়ি ভেজা মনে হয় বা মুঠোতে নিলে দলা বাঁধে আবার ভেঙে দিলে ঝুর ঝুর করে ঢেকে কিছুক্ষণ রেখে দিন। এবার চালনিতে নিয়ে হাত দিয়ে চালের গুঁড়ি মসৃণ করে চেলে নিন। যে পাতিলে পিঠা তৈরি করবেন বা ভাপ দিবেন তাতে গলা পর্যন্ত পানি দিন। এবার পাতিল পানি দিয়ে জ্বাল দিন।

রাজ ভাপা

এবার রাইস কুকার বা স্টিমারের পাত্রটির মধ্যে সুতি কাপড়টি ভিজিয়ে চিপে নিয়ে পাত্রের ভিতর বিছিয়ে প্রথমে চালের গুঁড়া, তার উপর খেজুর, উপরে গুড়, তার উপর কোরানো নারকেল বিছিয়ে দিয়ে আবার একই ভাবে চালের গুঁড়া, খেজুরের গুড় এবং কোরানো নারিকেল বিছিয়ে দিয়ে কাপড় দিয়ে ঢেকে ঢাকনা দিয়ে ভাপ দিতে হবে ১০-১৫ মিনিট। হয়ে গেল নামিয়ে উপরে কোরানো নারকেল এবং চেরী কুচি দিয়ে কেকের মতো করে কেটে পরিবেশন করুন মজাদার রাজ ভাপা পিঠা। নারকেল ও গুঁড় ছাড়া সাদা ভাপা পিঠা তৈরি করে গোসতের ঝোল বা ঘন দুধ ও খেজুরের রস দিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা একটি ওয়েব ম্যাগাজিন। রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা, ঘুড়ি এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। “রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা“ হচ্ছে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় গল্প ও কবিতার ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমাদের ওয়েবসাইটটি দেশের গন্ডি পেরিয়ে ভারত, নেপাল, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডাসহ বিভিন্ন দেশের মানুষের কাছে যেতে সক্ষম হয়েছে।