স্পেশাল সফট মিল্ক পুডিং

স্পেশাল সফট মিল্ক পুডিং

রেসিপি ও ছবিঃ মুহসিনা তাবাসসুম

পুডিং এ ডিমের স্মেল অনেকেই সহ্য করতে পারেন না তাই খেতেও চান না। কারণ পুডিং সাধারণত অনেক ডিম দিয়ে তৈরি করা হয়। এবার থেকে সবাই খেতে পারবেন মজাদার মিল্ক পুডিং। এই রেসিপিতে মাত্র ১টি ডিম দিয়ে তৈরি করা যায় মজাদার নরম তুলতুলে মিল্ক পুডিং।

উপকরণঃ তরল মিল্ক ১ ও ১/২ লিটার
ডিম ১ টি (বড় অথবা মাঝারি)
চিনি পরিমাণ মতো

ক্যারামেল এর জন্যঃ দানাদার চিনি ১ চা চামচ
পানি ১ চা চামচ
ঘি ১/২ চা চামচ

* আমার আম্মু একটু অন্য রকম করেই ক্যারামেল তৈরি করে। এর স্বাদ একেবারেই অন্য রকম লাগে।
* চিনি, ঘি ও পানি এক সাথে টিফিন বক্সে মিশিয়ে নিন । তারপর চুলার উপর ফ্রাই প্যানে অথবা তাওয়া দিয়ে টিফিন বক্সটি তার উপর বসিয়ে চুলায় জ্বাল দিন। বেশি আঁচে হালকা বাদামি কালার হলেই নামিয়ে নিন।

তৈরি করার নিয়মঃ প্রথমে দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে নিন। জ্বাল দেয়ার সময় নাড়তে থাকুন তা না হলে নিচে পুড়া লেগে যাবে। আবার অল্প আঁচে অনেক সময় নিয়ে দুধ কমালে দুধের কালার লালাচে হয়ে যাবে। তাই মাঝারি আঁচে দুধ কমিয়ে নিন। দুধ ঘন করে আধা কেজির বেশি রাখবেন। সফট পুডিং তৈরি করতে চাইলে জ্বাল দিয়ে ৬০০-৭০০ মিলি লিটার দুধ রাখতে হবে। দুধ ও ডিমের মিশ্রণে যেন স্টিলের টিফিন বক্সের সামান্য কম হয়। তবে আরেকটু শক্ত পুডিং তৈরি করতে চাইলে দুধ আধা কেজি কমিয়ে নিন। দুধ চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। একটি বড় পাত্রে ডিম ভেঙ্গে নিয়ে চামচ দিয়ে ভাল করে ফেটে নিন। এবার ফাটানো ডিমের সাথে দুধ ঢেলে ভাল করে মিশিয়ে নিন। পুডিং তৈরির জন্য একটি স্টিলের ঢাকনাসহ টিফিন বক্স নিন। অথবা যে পাত্রে পুডিং তৈরি করবেন সে পাত্রে আগে থেকেই ক্যারামেল তৈরি করে রাখুন। ক্যারামেল বেশি জ্বাল দিবেন না তা হলে চিনি পুড়ে কাল ও তিতা হয়ে যাবে। অল্প বাদামি কালার হলেই নামিয়ে নিবেন কারণ শেষের দিকে চিনি দ্রুত পুড়ে যায়। এবার দুধ ও ডিমের মিক্সার ভাল করে নেড়ে বক্সে ঢেলে দিন। প্রেশার কুকারে বক্স বসিয়ে বক্সের অর্ধেক পর্যন্ত পানি দিয়ে ঢাকনা লাগিয়ে দিন। মাঝারি আচে ৫-৬ টি শিশ দিলেই নামিয়ে নিন। নরম থাকতে পারে চিন্তার কিছু নেই ঠাণ্ডা হলে ফ্রিজে রাখলে ঠিক হয়ে যাবে। আর যদি বেশি নরম থাকে তবে আরো ২-৩ টি শিশ দিয়ে নামিয়ে নিন। অতিরিক্ত শিশ দিলে পুডিং শক্ত হয়ে পুডিং এর আসল স্বাদ চলে যাবে। ঠাণ্ডা করে পুডিং ফ্রিজে ১-২ ঘন্টা রাখুন। ফ্রিজ থেকে বের করে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন।

টিপসঃ
** পুডিং ঠাণ্ডা করে ফ্রিজে রাখুন। তারপর ছুড়ি দিয়ে চারদিক ছুটিয়ে সাভিং ডিশে ঢালুন।
** গরম অবস্থায় প্লেটে ঢালতে গেলে পুডিং এর শেপ নষ্ট হয়ে যাবে।
** যদি বেশি পাতলা দুধ হয় তবে তিন ভাগের দুই ভাগের একটু কম করে নিবেন।
** বেশি ঘন করলে পুডিং আবার আটা আটা লাগবে। ভাল লাগবে না।
** ঢাকনাসহ স্টিলের টিফিন বক্স ব্যবহার করা ভাল এতে করে ভিতরে পানি ঢুকার ভয় থাকে না আর ভালও হয়।
** বিটার দিয়ে মিক্স করবেন না। (আমি এর আগে আরেকটি পুডিং এর রেসিপি দিয়ে ছিলাম। এটা সেই রেসিপির মতোই শুধু দুধ একটু কম জ্বাল দিতে হবে মানে পরিমাণে বেশি রাখতে হবে।)

রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা একটি ওয়েব ম্যাগাজিন। রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা, ঘুড়ি এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। “রেসিপি.ঘুড়ি.বাংলা“ হচ্ছে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় গল্প ও কবিতার ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমাদের ওয়েবসাইটটি দেশের গন্ডি পেরিয়ে ভারত, নেপাল, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডাসহ বিভিন্ন দেশের মানুষের কাছে যেতে সক্ষম হয়েছে।